নড়িয়া ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে স্কুল ছাত্রীর বস্ত্র হরনের অভিযোগ

 শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলায় ঘড়িষার ইউনিয়নে চর লাউলানি মাঠে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে এক স্কুল ছাত্রীর বস্ত্র হরন ও শারিরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠে। এ ঘটনায় এলাকায় স্থানীয় সাধারন জনগন এর বিচার চেয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে।

স্থানীয় ও অভিযোগ সুত্রে যানা যায় , গত ১৬ জুন বেলা ২টার সময়  চর লাউলানি গ্রামে ঈদের আনন্দে মাঠে ফুটবল খেলতে যায়।  খেলাকে কেন্দ্র করে চরমোহন সুরেশ্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আব্দুল আলীম(সোহেল) হাওলাদারের নেতৃত্বে বাসার ভ’ইয়া, ডালিম ভুইয়া ও আনোয়ার ভুইয়া, মুকুল হাওলাদার সহ ৭/৮ জন চর লাউলানি গ্রামের দ্বীন মোহাম্মদ খার ছেলে চুন্নু মিয়া খা কে তাদের বাড়ি হতে ধরে   রাস্তায় এনে  লোহার রড দিয়ে মারধর করে আহত করেন। ভাইকে বাচাতে এসে ছোট বোন হালইসার নন্দসার স্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রী তাদের হাতে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হন এমনকি বস্ত্র হরনের শিকার হন বলে জানান।  পরে তাদের নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে দ্বীন মোহাম্মদ খা বাদি হয়ে  নড়িয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সোহেল হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

নড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আসলাম উদ্দিন বলেন,আমাদের  নিকট অভিযোগ আসার সাথে সাথে মামলা রুজু হয়েছে। আসামী ধরার চেষ্টা চলছে।