সাবেক সাব রেজিষ্টারের বিরুদ্ধে প্রবাসীর জমি দখল করে মাছের ঘের করার অভিযোগ

 

ডামুড্যা প্রতিনিধিঃ

শরীয়তপুরে ডামুড্যায় এক প্রবাসীর কৃষি জমিতে জোরপূর্বক অবৈধ্যভাবে মাছের ঘের খননের অভিযোগ উঠেছে সাবেক সাব রেজিষ্ট্রার ও সাবেক সিড্যা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। প্রবাসী কাইয়ুম হোসেন নিপ্পন দীর্ঘদিন যাবত প্রবাসে থাকাতে তাদের জমিজমা দেখাশুনা করতেন সাবেক সাব রেজিষ্ট্রার ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম সায়লু। সেই সুবাধে প্রবাসী কাইয়ুম হোসেন নিপ্পনের ১৫০ শতাংশ জমি দখল করেন সাবেক সাব রেজিষ্ট্রার ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম সায়লু, তার মধ্যে তার জমির সঙ্গে ৭০ শতাংশ জমিতে নিয়ে তিনটি মাছের প্রজেক্ট করেন তিনি। প্রবাসী কাইয়ুম হোসেন নিপ্পন দেশে আসার পর স্থানীয় শালিসিদের কাছে বিচার চাইলে তারা প্রভাবশালী হওয়াতে তিনি কোন বিচার পাননি উল্টো নিরাপত্তহীনতায় ভুগতেছেন তিনি।
স্থানীয় সালাউদ্দিন বলেন, আমরা জানি এখানে নিপ্পনদের জায়গা আছে, এখন শুনছি যে এখানে চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম সায়লু তাদের কাছ থেকে না জানিয়ে মাছের প্রজেক্ট খনন করছে।
মাছ ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক মৃধা বলেন, আমরা চেয়ারম্যানের কাছ পুকুর লিজ নিছি এখানে কি জামেলা আছি সেটা আমরা জানি না, এখন শুনতেছি এখানে নাকি তার সাথে কার জমি নিয়ে কি একটা জামেলা আছে, যদি এমন জামেলা হয়, তাহলে তো আমাদের একটু ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা আছে।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাবেক সাব রেজিষ্ট্রার ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম সায়লু বলেন, কাইয়ুম হোসেন নিপ্পনের পরিবার আমার কাছ থেকে জমি বিক্রি করার কথা বলে ১৬ লক্ষ টাকা নিছে, তারা আমাকে জমি দলিল করে দেওয়ার কথা তারা আমাকে দলিল দিচ্ছেনা, তাই সেখানে আমি মাছের প্রজেক্ট খনন করছি।
ভুক্তভোগি প্রবাসী কাইয়ুম হোসেন নিপ্পন বলেন, আমরা প্রবাসে থাকি আর আমাদের বাড়িতে আমার অসুস্থ বড় ভাই আর বৃদ্ধা মা থাকে সেই সুবাধে প্রভাবশালী সাবেক সাব রেজিষ্ট্রার ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম সায়লু আমাদের কৃষি জমিতে কেটে মাছের প্রজেক্ট করছে, এলাকায় স্থানীয় শালিসিদের জানালে সে প্রভাবশালী হওয়াতে আমরা কোন বিচার পাই নাই, উল্টো নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেছি। আমি একজন প্রবাসী হয়ে সরকারের কাছে এর সঠিক বিচার চাই।