জাজিরায় আপত্তিকর ভিডিও ফাসের হুমকী, চাঁদা নিতে গিয়ে জনতার হাতে আটক

 

শাওন বেপারি, জাজিরা প্রতিনিধি।
শরীয়তপুরের জাজিরায় আপত্তিকর ভিডিও ফাসের হুমকী দিয়ে চাঁদা আনতে গিয়ে সাদিয়া নামে একটি মেয়ে জনতার কআ হাতে টক হয়েছে। রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় জাজিরা উপজেলার ব্যাংক মোড় থেকে সাদিয়া আটক হয়।

জাজিরা থানা ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, জাজিরা থানাধীন আহাদ্দি মাদবর কান্দি গ্রামের সাবেক কমিশনার (জাজিরা পৌরসভা) ওসমান গণি হাওলাদারের মেয়ে সরকারি জাজিরা মোহর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের এস.এস.সি পরিক্ষার্থী সাদিয়ার বাবার সাথে একই গ্রামের শুকুর চৌকিদারের সাথে দীর্ঘদিন যাবত পারিবারিক বিবাদ চলে আসছিলনএরই জের ধরে গত ৩১ মার্চ বুধবার বিকাল ৫ টা২৫ মিনিটের সময় অজ্ঞাত একটি নাম্বার থেকে ভুক্তভোগীর মা সুফিয়া বেগম এর মোবাইলে একটি কল আসে মেয়ে কন্ঠ বলে আপনার মেয়ের বেশ কিছু আপত্তিকর ভিডিও সহ কিছূ অশ্লীল ছবি আমাদের কাছে রয়েছে, যদি বিষয়টি প্রকাশ করতে না চান তাহলে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে এসে আমাকে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা দিয়ে যান, অন্যথায় আমাদের হাতে থাকা ভিডিও ও অন্যান্য ডকুমেন্ট আমরা ইন্টারনেটে ছেড়ে দিব। বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভোগীর মা সুফিয়া বেগম জাজিরা থানায় একই দিন একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। পরে গতকাল রবিবার ১২ এপ্রিল সকাল আনুমানিক ১০ টার সময় সাদিয়া নামের মেয়েটি জাজিরা উপজেলা সোনালী ব্যাংক মোড়ে স্থানীয় বিকাশ এজেন্সী ভাই ভাই স্টোরে এসে জিজ্ঞেস করে যে, আপনাদের বিকাশে ৪০ হাজার টাকা আনা যাবে কিনা? বিকাশ এজেন্সীর মালিক আনা যাবে বলে জানালে সাদিয়া সুফিয়া বেগমকে কল দিয়ে বিকাশ নাম্বারে টাকা পাঠাতে বললে সুফিয়া বেগম সুকৌশলে স্থানীয়দের সহায়তায় সাদিয়াকে আটক করে। পরে জাজিরা থানার পুলিশের কাছে তাকে সোপর্দ করেন।

এবিষয়ে জাজিরা থানার অফিসার ইনচার্জ আজাহারুল ইসলাম বলেন, আমাদের কাছে একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে এবং আসামী আমাদের হাতে রয়েছে, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতার প্রমান মিলেছে তবে বিষয়টি তদন্তপূর্বক মামলা গ্রহন করা হবে এবং পরবর্তীতে একটি মামলা হয়। মেয়েটি অসুস্থ অবস্থায় জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি ছিলো।