শরীয়তপুরে ডিসির সহায়তায় সুশৃঙ্খল ফিরে এলো হাসপাতালে

 

মোহাম্মাদ জামাল মল্লিক,শরীয়তপুর।।
করোনা প্রতিরোধে শরীয়তপরের জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসানের সহায়তায় বদলেগেছে জেলার সদর, ডামুড্যা, ভেদরগঞ্জ, জাজিরা, গোসাইরহাট ও নড়িয়া উপজেলার হাসপাতালের চিত্র। সোমবার ১৩ এপ্রিল সকাল থেকে শরীয়তপুর জেলা ৬ উপজেলার ৬টি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের সাস্থ্য বিধি মেনে সেবা নিশ্চিত করতে আনসার সদস্য নিয়োগ করা হয়। আনসার সদস্যগন বিশৃঙ্খল জনসাধারণ কে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে নিরলসভাবে কাজ করেন এবং একাজে তারা সফল হন।

হাসপাতালের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার বিষয়ে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মাহমুদুল হাসান বলেন, সরকারী নির্দেশনা অনুসারে অন্তঃবিভাগে একজন রোগীর সাথে একজনের বেশী প্রবেশ করা যাবে না। কিন্তু বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার কারনে সেটা এতোদিন সম্ভব হয় নাই। জেলা প্রশাসক স্যারের সহায়তায় আজ তা সম্ভব হলো। এখন থেকে আমরা চেষ্টা করবো সেটা করার জন্য। জাজিরাবাসীর প্রতি অনুরোধ থাকবে, যেহেতু করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং অনেক লোকজন ওয়ার্ডে ঢুকলে রোগীদের ও কষ্ট বাড়ে তাই সরকারি এই আদেশ মেনে চলবেন। আপনদের সুবিধার্থে গেটে ০২ জন করে আনসার বাহিনীর সদস্য দায়িত্ব পালন করবে।সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি।
আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান স্যারকে।

এবিষয়ে জেলাপ্রশাসক পারভেজ হাসান বলেন, ডাক্তাররা যদি সুস্থ থাকে তাহলে আমার জেলার জনগন তাদের কাছথেকে সেবা নিতে পারবে তাই আমি ডাক্তারদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে এই উদ্যোগ নিয়েছি। এছাড়াও আমি আমার জেলার প্রতিটি উপজেলা স্বস্থ্যকমপ্লেক্সে ডাক্তারদের সুরক্ষার জন্য সুরক্ষাবুথের ব্যবস্থা করবো যাতে করে ডাক্তারগন নিরাপত্তা বজায় রেখে সাধারণ মানুষের মাঝে করোনাকালীন সেবা নিশ্চিত করতে পারেন।